Products

Shop Description

Showing 1–6 of 26 results

Filter by price

Filter
  • ইলিশ

    ৳ 900.00 ৳ 700.00
    রূপালী  ইলিশ বাংলাদেশের জাতীয় মাছ এবং অন্যতম প্রধান মৎস্য সম্পদ , মাছটি বাংলাদেশি ও ভারতের পশ্চিম বাংলার অধিবাসীদের জন্য অত্যন্ত লোভনীয় একটি মাছ। মাছটি স্বাদে গন্ধে অতুলনীয়।  ইলিশ ছাড়া ইদানীং বাঙ্গালীর  নববর্ষ  উদযাপন হয় না। ইলিশ মাছ স্বাদে গন্ধে অতুলনীয় । মাঝারী সাইজের (৭০০-৯০০ গ্রাম)  মুল্য  প্রতি কেজির সিজন ভেদে ৬০০ - ৮০০ টাকা ।

    ইলিশ

    রূপালী  ইলিশ বাংলাদেশের জাতীয় মাছ এবং অন্যতম প্রধান মৎস্য সম্পদ , মাছটি বাংলাদেশি ও ভারতের পশ্চিম বাংলার অধিবাসীদের জন্য অত্যন্ত লোভনীয় একটি মাছ। মাছটি স্বাদে গন্ধে অতুলনীয়।  ইলিশ ছাড়া ইদানীং বাঙ্গালীর  নববর্ষ  উদযাপন হয় না। ইলিশ মাছ স্বাদে গন্ধে অতুলনীয় । মাঝারী সাইজের (৭০০-৯০০ গ্রাম)  মুল্য  প্রতি কেজির সিজন ভেদে ৬০০ - ৮০০ টাকা ।
    ৳ 700.00Was ৳ 900.00
    Save ৳ 200
    ৳ 900.00 ৳ 700.00
    In Stock 6 Available
  • কই কোরাল

    ৳ 500.00 ৳ 470.00
    কই কোরাল দেখতে অনেকটা  কই মাছের মত , তবে এটা একটি সামুদ্রিক কোরাল প্রজাতির মাছ। তাই একে কই কোরাল বলা হয়।  কই কোরাল সাধারণত ২ প্রকার হয়।  একটা এনেক বড় আকৃতির ও অন্যটা ছোট আকৃতির । বড় আকৃতির কই কোরাল দিয়ে মাছের চপ খুব ভাল হয় তাই বড় বড় হোটেলে এর চাহিদা বেশি। বড়টা গ্রিল করেও খেতে মজাদার এই মাছ।

    কই কোরাল

    কই কোরাল দেখতে অনেকটা  কই মাছের মত , তবে এটা একটি সামুদ্রিক কোরাল প্রজাতির মাছ। তাই একে কই কোরাল বলা হয়।  কই কোরাল সাধারণত ২ প্রকার হয়।  একটা এনেক বড় আকৃতির ও অন্যটা ছোট আকৃতির । বড় আকৃতির কই কোরাল দিয়ে মাছের চপ খুব ভাল হয় তাই বড় বড় হোটেলে এর চাহিদা বেশি। বড়টা গ্রিল করেও খেতে মজাদার এই মাছ।
    ৳ 470.00Was ৳ 500.00
    Save ৳ 30
    ৳ 500.00 ৳ 470.00
  • কাটেল ফিশ

    ৳ 400.00 ৳ 350.00
    "কাটেল ফিস" অনেকটা অক্টোপাস টাইপের এক প্রকার সামুদ্রিক প্রাণী । "কাটেল ফিস" হলো স্কুইড মাছ পরিবারে একটি সদস্য। যার ছবি আপনারা নিচেই দেখতে পাচ্ছেন। এই মাছ গুলো সমুদ্রের অনেক গভীরে বসবাস করে। বঙ্গোপসাগরে প্রচুর পাওয়া যায়। সাধারণত চিন , ভিয়েতনাম , থাইল্যান্ড , ফিলিফাইন , শ্রীলংকা এই সকল দেশের অধিবাসী নিকট খুবই জনপ্রিয় খাওয়ার।  কাটেল ফিস - কেজিতে ৬-৭ টা

    কাটেল ফিশ

    "কাটেল ফিস" অনেকটা অক্টোপাস টাইপের এক প্রকার সামুদ্রিক প্রাণী । "কাটেল ফিস" হলো স্কুইড মাছ পরিবারে একটি সদস্য। যার ছবি আপনারা নিচেই দেখতে পাচ্ছেন। এই মাছ গুলো সমুদ্রের অনেক গভীরে বসবাস করে। বঙ্গোপসাগরে প্রচুর পাওয়া যায়। সাধারণত চিন , ভিয়েতনাম , থাইল্যান্ড , ফিলিফাইন , শ্রীলংকা এই সকল দেশের অধিবাসী নিকট খুবই জনপ্রিয় খাওয়ার।  কাটেল ফিস - কেজিতে ৬-৭ টা
    ৳ 350.00Was ৳ 400.00
    Save ৳ 50
    ৳ 400.00 ৳ 350.00
  • কাপ্তাই লেকের কেচকি

    ৳ 300.00 ৳ 250.00
    কেচকি বা  কাচকি  খুব ছোট প্রায় স্বচ্ছ মাছ, যা সচরাচর বাংলাদেশের কাপ্তাই লেকে , হালদা নদীতে ও অন্যান্য নদ-নদী, খাল-বিলে প্রচুর পাওয়া যায়।   এই প্রাকৃতিক ভাবে পাওয়া গেলেও বাণিজ্যিক ভাবে এর চাষ করা হয় না। দোপেঁয়াজা এবং ভুনা করে খেতে মজাদার। দোপেয়াজা মাছের চড়চড়ি খুব উপাদেয় খাবার। ধনিয়া পাতা আর টমেটো দিলে এই তরকারি টির স্বাদ অনেক ভালো হয়। ভাতের সাথে অনেকেই খুব পছন্দ করে খায়। রাঙ্গামাটির কাপ্তাই লেকে এই মাছ প্রচুর পাওয়া যায়। তাজা অবস্থায় রান্না করতে পারলে খুবই মজাদার হয়।

    কাপ্তাই লেকের কেচকি

    কেচকি বা  কাচকি  খুব ছোট প্রায় স্বচ্ছ মাছ, যা সচরাচর বাংলাদেশের কাপ্তাই লেকে , হালদা নদীতে ও অন্যান্য নদ-নদী, খাল-বিলে প্রচুর পাওয়া যায়।   এই প্রাকৃতিক ভাবে পাওয়া গেলেও বাণিজ্যিক ভাবে এর চাষ করা হয় না। দোপেঁয়াজা এবং ভুনা করে খেতে মজাদার। দোপেয়াজা মাছের চড়চড়ি খুব উপাদেয় খাবার। ধনিয়া পাতা আর টমেটো দিলে এই তরকারি টির স্বাদ অনেক ভালো হয়। ভাতের সাথে অনেকেই খুব পছন্দ করে খায়। রাঙ্গামাটির কাপ্তাই লেকে এই মাছ প্রচুর পাওয়া যায়। তাজা অবস্থায় রান্না করতে পারলে খুবই মজাদার হয়।
    ৳ 250.00Was ৳ 300.00
    Save ৳ 50
    ৳ 300.00 ৳ 250.00
  • কালো রূপচাঁদা

    ৳ 400.00 ৳ 350.00
    কালো রূপচান্দা দেখতে একটু কালছে রঙ্গয়ের হয় আর খেতেও মজাদার । মাঝারী সাইজের মূল্য  প্রতি কেজির সিজন ভেদে ২০০-৩০০ টাকা আর  বড়  ৩০০ - ৫০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

    কালো রূপচাঁদা

    কালো রূপচান্দা দেখতে একটু কালছে রঙ্গয়ের হয় আর খেতেও মজাদার । মাঝারী সাইজের মূল্য  প্রতি কেজির সিজন ভেদে ২০০-৩০০ টাকা আর  বড়  ৩০০ - ৫০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।
    ৳ 350.00Was ৳ 400.00
    Save ৳ 50
    ৳ 400.00 ৳ 350.00
  • ঘরের তৈরী ঘি

    ৳ 1,500.00 ৳ 1,400.00
    ঘাস খাওয়া গরুর দুধ দিয়ে দেশি গাওয়া ঘি বানাতে হয়। বাজারেও যেসব ঘি পাওয়া যায় তা আসলেই কতটা মানসমত্ব আর কি দিয়ে তৈরি সেটা নিয়ে আমদের সকলের মনে প্রশ্ন আছে। বাজারে এমনও কিছু গাওয়া ঘি আছে , যেটাতে গরুর দুধ তো দুরের কথা, সয়াবিন তেলও থাকে না। সেইটা তৈরি হয় গরুর চর্বি , কিছু কেমিক্যাল ও কৃত্রিম ফ্লেভার দিয়ে। তা ছাড়া দীর্ঘদিন সংরক্ষণের জন্য প্রিজারভেটিভস দেয়া হয় কোন কোন গাওয়া ঘী তে। সে কারণে তাজা তাজা নিজস্ব তত্তাবধানে ঘাস খাওয়া খাঁটি গরুর দুধ দিয়ে তৈরি সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক গাওয়া ঘী নিয়ে এসেছে আপনাদের সেবায় । সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক হওয়ায় এবং ঘরে তৈরি হওয়ার কারণে এটার দাম স্বাভাবিক ভাবেই একটু বেশি।

    ঘরের তৈরী ঘি

    ঘাস খাওয়া গরুর দুধ দিয়ে দেশি গাওয়া ঘি বানাতে হয়। বাজারেও যেসব ঘি পাওয়া যায় তা আসলেই কতটা মানসমত্ব আর কি দিয়ে তৈরি সেটা নিয়ে আমদের সকলের মনে প্রশ্ন আছে। বাজারে এমনও কিছু গাওয়া ঘি আছে , যেটাতে গরুর দুধ তো দুরের কথা, সয়াবিন তেলও থাকে না। সেইটা তৈরি হয় গরুর চর্বি , কিছু কেমিক্যাল ও কৃত্রিম ফ্লেভার দিয়ে। তা ছাড়া দীর্ঘদিন সংরক্ষণের জন্য প্রিজারভেটিভস দেয়া হয় কোন কোন গাওয়া ঘী তে। সে কারণে তাজা তাজা নিজস্ব তত্তাবধানে ঘাস খাওয়া খাঁটি গরুর দুধ দিয়ে তৈরি সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক গাওয়া ঘী নিয়ে এসেছে আপনাদের সেবায় । সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক হওয়ায় এবং ঘরে তৈরি হওয়ার কারণে এটার দাম স্বাভাবিক ভাবেই একটু বেশি।
    ৳ 1 400.00Was ৳ 1 500.00
    Save ৳ 100
    ৳ 1,500.00 ৳ 1,400.00
Item added To cart
X